আজ ৪ মাঘ ১৪২৩, বুধবার

শেষ বিকেলের অপেক্ষা
- আহমেদ উল্লাহ্ - ভবের মুসাফির

তুমি কী একবারও আসতে পারো না-- সাঁঝের গোধূলি বেলায়; সবুজ শ্যামলিয়া মাঠে, অবুঝ অরুনের বিদায়ের ক্রন্দিত বেলায়! সন্ধ্যার আহ্বানে কৃষক যখন- শূন্য মাঠ ফেলে ফিরে আসে ঘরে! চিল, হংস বলাকারা যখন প্রেমের টানে ফিরে আসে নীড়ে! এমনো মনোহরী প্রকৃতির বুকেও কি একবার আসতে পারো না! আমি অশান্ত উদাসীর চোখে চেয়ে থাকি- তুমি যদি সাঁঝের এমনো ফাগ-রাঙানো আঙিনায় একবার এসে থাকো সন্ধ্যা শিশিরের ভীড়ে! শূন্য মাঠ খা..খা করে উদাস মত্ত্বতায়! কই তুমি তো এসোনি... সারা ময়দান কুয়াশায় গ্রাস করে কাফনের মতো! তুমি এসোনি, তবুও তুমি এসোনি! সন্ধ্যার আকাশে চাঁদ ওঠে লাল হয়ে- প্রিয়ার অভিমানী নয়নের পল্লবী মেলে! তারার মেলাতে সাজানো গগন চরাচড়ে মাঝে মাঝে ছুটে উল্কাদল... এমন রূপালি পূর্ণিমা নিশিতেও তুমি কি একবার আসতে পারো না জোস্না-সাগরের তীরে! আমি জোস্নায় ডুবে ডুবে একা একা বাঁশি বাজাই- নীরব ময়দানের বুকে! তুমি যদি বাঁশির সুরে একবার এসে থমকে দাঁড়াও-- জোস্না-প্লাবিত নিশির আঙিনায়! কই তুমি তো আসলে না! আসবেই-বা কেন? আমি কে-বা তোমার? তুমি কী একবারও আসতে পারো না-- সাঁঝের গোধূলি বেলায়; সবুজ শ্যামলিয়া মাঠে, অবুঝ অরুনের বিদায়ের ক্রন্দিত বেলায়! সন্ধ্যার আহ্বানে কৃষক যখন- শূন্য মাঠ ফেলে ফিরে আসে ঘরে! চিল, হংস বলাকারা যখন প্রেমের টানে ফিরে আসে নীড়ে! এমনো মনোহরী প্রকৃতির বুকেও কি একবার আসতে পারো না! আমি অশান্ত উদাসীর চোখে চেয়ে থাকি- তুমি যদি সাঁঝের এমনো ফাগ-রাঙানো আঙিনায় একবার এসে থাকো সন্ধ্যা শিশিরের ভীড়ে! শূন্য মাঠ খা..খা করে উদাস মত্ত্বতায়! কই তুমি তো এসোনি... সারা ময়দান কুয়াশায় গ্রাস করে কাফনের মতো! তুমি এসোনি, তবুও তুমি এসোনি! সন্ধ্যার আকাশে চাঁদ ওঠে লাল হয়ে- প্রিয়ার অভিমানী নয়নের পল্লবী মেলে! তারার মেলাতে সাজানো গগন চরাচড়ে মাঝে মাঝে ছুটে উল্কাদল... এমন রূপালি পূর্ণিমা নিশিতেও তুমি কি একবার আসতে পারো না জোস্না-সাগরের তীরে! আমি জোস্নায় ডুবে ডুবে একা একা বাঁশি বাজাই- নীরব ময়দানের বুকে! তুমি যদি বাঁশির সুরে একবার এসে থমকে দাঁড়াও-- জোস্না-প্লাবিত নিশির আঙিনায়! কই তুমি তো আসলে না! আসবেই-বা কেন? আমি কে-বা তোমার?

মন্তব্য যোগ করুন

কবিতাটির উপর আপনার মন্তব্য জানাতে লগইন করুন।

মন্তব্যসমূহ