আজ ২০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯, রবিবার

পুনরুত্থান
- সাদমান সাকিল

আমি আমার মাঝে হারিয়ে যাব, বিলুপ্ত-বিলীন
থাকবো ভুলে সুখের কাব্য স্বর্ণালী সব দিন।
থাকবো ভুলে চিঠির পাতা, সদ্য সাবেক সুখ
আমি আমার মাঝে করব পালন নির্জনতার রোগ।
আমি আকাশ 'পরে পাঠিয়ে দেব শুষ্ক-চখের জল,
সেই জলপাখিরা জল-সাগরে করবে টলমল।
আজি আমার চোখের জলের ফোঁটা কুন্ডলিত মেঘ;
সেই মেঘের চিঠি তোমার চোখে মাখবে ভাবাবেগ।
প্রাকতন সব সুখের স্মৃতি করবে আন্দোলন-
ভুলে তাদের করবো আমি কষ্ট-আয়োজন।
অন্ধ-কূপে বদ্ধ হয়ে থাকবো আমি চুপ,
হোঠাত হোঠাত দ্যাখতে পাবো অন্ধকারের মুখ!
আমি আপন মনে হেসে উঠি অন্ধ-প্রেক্ষাপটে
দিকে দিকে আমার নামে পাপ-কালিমা রটে।
হচ্ছি আমি ধীরে ধীরে অন্ধকারে লীন
সুখপাখি সব হারিয়ে গ্যাছে দুঃখ অমলিন।
আমার হৃদ-জমিনের মধ্যখানে কৃষ্ণ-কালো-নদী
আমার বসার আসন এখন থেকে কষ্টাগারের গদি।
আমি ছুটবো নাকো ভুল করেও সুখের পিছে আর
আমি কষ্টস্রোতে করবো হোঠাত আমায় আবিষ্কার!
তোমরা কেউ নিও নাকো- সুখ-প্রাসাদে খোঁজ,
আমি কষ্ট-কালো-শব্দ-শেকল পাঠিয়ে দেব রোজ।
শব্দ-শেকল যত্ন করে মনের গলায় দাও-
দ্যাখবে অবাক- যাচ্ছে পুড়ে মনবাড়ি ধাউ ধাউ!
আমি আজকে আমায় করছি কালো, জ্বালবো আগুন ভেবে-
আমার কৃষ্ণ-কালো-অগ্নিঘোড়া সব জ্বালিয়ে দেবে ।
ভ্রষ্ট মানুষ, নষ্ট প্রাসাদ- সব পুড়িয়ে দেবে...

মন্তব্য যোগ করুন

কবিতাটির উপর আপনার মন্তব্য জানাতে লগইন করুন।

মন্তব্যসমূহ