আজ ২৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, রবিবার

জীবন পথ
- মোঃ আব্দুর রহমান

ওই যে বাচ্চারা হামাগুড়ি দিচ্ছে, উঠে দাঁড়ানোর প্রবল চেষ্টায় আছাড় খাচ্ছে বারবার
আমিও একদিন ছিলাম ওদের দলে।
বাতাবি লেবু দিয়ে ফুটবল বানিয়ে খেলছে এক দল শিশু
ঘাস ভরা মাঠে কখনোবা কাঁদাজলে ভরা সদ্য কাটা ধানক্ষেতে,
কিছু অতীতে ফিরে খুঁজলে
আমাকেও পাবে কোন এক দলে।
ঘাড়ে ব্যাগ ঝুলিয়ে যারা হুঁটোপুটি করতে করতে স্কুলে যাচ্ছে
আম, জাম, সুপারি গাছে লাফিয়ে বেড়াচ্ছে
শেখদের পুকুরে দল বেধে ঝাপাঝাপি করছে
সন্ধ্যা নামলেই কুঁপির আলোতে গলা ছেড়ে দিয়ে পড়ছে
'' আমাদের দেশে হবে সেই ছেলে কবে
কথায় না বড় হয়ে কাজে বড় হবে?''
ভোর হওয়ার আগেই আমপারা নিয়ে ছুটছে মক্তবে
এক সাথে সুর করে পড়ছে, আলিফ যবর আা, আলিফ যের ই,
এসকল দুরন্ত শৈশবের দলগুলোতে পূর্বসূরি হয়ে মিশে আছি আমি, শুধু সময়টা এগিয়ে গেছে সামনে।
এমনি ভাবে ফেলে এসেছি লাল, নীল স্বপ্ন দেখার কৈশর
ক্রমে চলে যাবে যৌবন, বার্ধক্য, তারপর..
তারপর একদিন, সূর্যের আলো পড়বে উঠোনে, মোঁরগ ডাকবে,
আমার মায়ের মতো অন্য কোন মা তাঁর সন্তানের ঘুম ভাঙাবে,
পাখি ডাকবে, রিমঝিম ধারায় বৃষ্টি পড়বে,
ঢং ঢং করে স্কুলের ঘন্টা বাজবে, শুধু আমি থাকবো না।
আমার জামা, জুতো, খালি চেয়ার কিছু দিন পড়ে থাকবে,
ধুলো জমবে,তারপর সেগুলোও হারিয়ে যাবে।
এ ব্যস্ত পৃথিবীর সহস্র ঘটনার মাঝে আমার এই তুচ্ছ অস্তিত্ব হারিয়ে যাবে একদিন,
শত কোহালের ভিড়ে আমার এ নামটা আর কখনো উচ্চারিত হবে না।

মন্তব্য যোগ করুন

কবিতাটির উপর আপনার মন্তব্য জানাতে লগইন করুন।

মন্তব্যসমূহ