আজ ৬ ভাদ্র ১৪২৬, বৃহস্পতিবার

লাল শাড়ি
- আকছার মুহাম্মদ - নিরাশ্রয় পাঁচটি আঙুল

জয়ীতা
লাল শাড়িটায় তোকে মানিয়েছে বেশ,
গন্ধ ফুলের তৃষ্ণায় উড়ে তোর সবুজ কেশ।

আঁচল খানি ধরতে
মশগুল হয়ে ছুটে চলেছে স্বর্গের পাপীরা
অনির্বাণ প্রধিপ হাতে তামাম যৌন মউজে,
তোর চন্দ্রিকা মাখা মখমল শওকতে
নিজের মনোরথ লহর স্থাপনে।

ওদের দাবী
তল্লাট খুজে পাবেনা তোর দোলা
অবিনাশী শিকারী মেদহীন ভাষ্কর্য।
তোর চিকনা গায়ে জেগে উঠা ছন্দের
দুর্মতি স্পন্দন জাগানো শশী। আশ্চর্য!

ভূপৃষ্ঠে তাই
সতত ভাবনায় তাদের উথানীয় ভূষন
মাখা মিনারগুলোর বাঁধন গেতে--
তাদের বৃক্ষটির উদ্যান বিনিময় করে
বিরলে চায় তোর মকবুল হতে।

অন্বেষা ঘুঙুর সঙ্গোপনে
কর্দম মাখা হাতে সাম্যের নবদ্বার
উত্তরীয় বিছিয়ে পেতে চাইছে
অমৃতলোক তোর আলিঙ্গনে।

এইখানে অনুগামী ধ্বনি ছুটে
নীলিমার কোমল স্বর্গীয় ঠোঁটে এককান
চুমুর তটনী গাঁথতে নিস্ফল পাথরে
মাথা ঠুকে অকালে প্রান হারাবে বলে ।

শত গোলাপের জিজ্ঞাসা
"কে সাজিয়েছে তোকে - এত কিছু
ল্যাংটো করে মূর্তি করে পূজারী..... "
দিন পোহায় প্রার্থনার মন্ডপে পাপী
চক্ষুর সকাশে কেউ চায় সঙ্গম সহবাস,
সুপ্তিকালীন তখতে, বখাটেপনা কান্ডে।

অবশেষে
এই আমি দাঁড়িয়েছি শংকিত জাগরনে।
তোর খোলা চুলে অনর্থ হাতে গুজে দিতে
একটি সর্বহারা পূত গোলাপ।

সে শুধু-
চেয়েছে তোর বাড়ন্ত শরীরে
শরীয়ত মেনেই তোর সাথী হতে।

মন্তব্য যোগ করুন

কবিতাটির উপর আপনার মন্তব্য জানাতে লগইন করুন।

মন্তব্যসমূহ