আজ ২ আশ্বিন ১৪২৬, মঙ্গলবার

কি লাভ বেঁচে
- আশিক সারওয়ার - গ্রাফিতির সমাধি

কি লাভ বেঁচে বল তো নিখিলেশ ডেঙ্গুতে বাঁচলে বন্যায় আমি শেষ বন্যা বাঁচলে গুজবের রয়ে যাবে রেশ আসো আগুনে পুড়ি, পানিতে মরি মরি দুজনে গণপিটুনি খেয়ে নিখিলেশ এরপরও বেঁচে গেল খাব- চাপাতির কোপ, মায়ের গর্ভেই থেকে যাব- সে ভরসা কোথায়, গুলি খেয়ে মরবে শিশু তোমার ভগবান আমার ঈশ্বর দিবেন নতুন ইস্যু এরপরও বল বাঁচি কি ভাবে নিখিলেশ তুমি আমি তো ভেবেছিলাম এক সাথে হাঁটবো ভেবে ভেবে ওই টক টক আকাশটা চাঁটবো সুকুমার কে বলে গিয়েছিল সীতানাথ বন্দ্যো'র কথা ধর্ষণ হবে রাস্তায় নারী, শুনবো দু'জন রুপকথা আহা উপেন্দ্র লিখে গিয়েছিল হীরক রাজার দেশ ক্রস ফায়ারে মরে অপরাধী, আহা বেশ বেশ বেঁচে গেলে দু'জন লিখবো রচনা ট্র‍্যাক চাপায় হবে মস্ত দুর্ঘটনা আহা নিখলেশ কি ভাবে বাঁচি বল দেখি চল না আবার সুনীল কে ডাকি, ডাকি নীরা কে নতুন করে ভালোবাসা শিখবো, আমার প্রিয়া কে নীললোহিত তুমি কি শুনতে পাও বন্ধু ভেজাল খাদ্যে প্রাণ কি গেছে, না কি চলে গেছ সিন্ধু আর কি কোন পন্থা বাকি আছে দাতা আপনাকেই মানিবো পিতা, অগ্নি পরীক্ষা দিবে সীতা নিবারুণ তাই কি বলে গেছে - এই মৃত্যু উপত্যকার দেশ আমার নয় কোথায় কাজী'দা, কোথায় জীবনানন্দ ভালো নেই আমি, যাচ্ছে জীবন মন্দ আপনারা আবার ফিরে আসুন না কারার ঐ লৌহ কপাট ভাঙ্গবো না হয় যখন উঠে যাবে পঞ্চমীর চাঁদ মরিবার হল সাধ সবই মিথ্যা, সবই ভ্রান্ত, পৃথিবীর বোঝা বয়ে - আমি বড্ড ক্লান্ত, বাজবো এবার প্রলয় বিষাণ ধংস হবে শিকল পূজার পাষাণ বেদী কাজী নজরুল কেন আমায় বিদ্রোহী বানালে আপন সষ্ট্রা কে ভুলে, ধর্ম আমার গেল কোন চুলে এরপরও চল পৃথিবীর পথে হেঁটে যাই নিখিলেশ বড় আজব এই মানব ধর্ম, ভুলে আপন কর্ম আমাদের পিছে হাঁটে আকাশের সুনীল পিছে হাঁটে কাজী, আরে দেখ না এসেছে সুকান্ত সাদা সফেদ দাঁড়ির রবীন্দ্রনাথ মুচকি হাসে জীবন হল আবার প্রাণবন্ত, তোমার আমার বড্ড চিনা আবার বাজুক কবির শব্দ বীণা হা হা পায় যে হাসি, ভগবান পড়বে ফাঁসি৷

মন্তব্য যোগ করুন

কবিতাটির উপর আপনার মন্তব্য জানাতে লগইন করুন।

মন্তব্যসমূহ