আজ ৭ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬, বৃহস্পতিবার

এক শোষিত নারীর গল্প
- বায়েজীদ হোসেন বাদশা

আমার লেখা ছন্দহীন কবিতাগুলোয়--
অন্য কাউকে আবৃত করলেই কি--
তা ক্রমশই বেদখল হয়ে যাবে?
তবে আমি কাকে লিখতে বলবো, বলো?
একটি আটপৌরে সাধারণ মেয়ের গল্প--
অসাধারণ ছন্দযুক্ত ভঙ্গিতে?
এক শোষিত নারীর নিঃশেষিত গল্প,
পরিশেষ কি নাটকীয়ভাবে ক্ষমার হবে?
নাকি উপসংহারবিহীন অসীম শৌর্যের?
সে যা-ই হোক, থাকলো তার কিছু.......
তুবু একটি গল্প লিখো অবেলায়।
কালি নয়, এক কাজল কালির দাগ দিয়ে,
ভালোবাসা নয়, শোষনের তীব্রতা দিয়ে!
তবে তোমার কলম কি বসবে বেঁকেই?
কলমের সাথে কলমের মালিকও বুঝি,
এমনভাবে শুকিয়ে, ফুরিয়ে বেঁকে যায়।
সমস্ত মাঠের বুকে জুড়ে হাঁট বসেছে,
কতশত মানুষ যত বেচাকেনায় বেশ মেতেছে।
সুখের বাজারে আজ দুখের বেচাকেনা!
তোমার ভাঙা কলম তবে হোক বিক্রি,
শোষিত হৃদয়ের মত উঠুক নিলামে।
ভাঙা কলমের দোকানে দুখের খদ্দের,
তাদের কাজল চোখের রঙিন দোকানে--
এক জীবনের সুখ পকেটে সুখের খদ্দের!
একটিও ভাঙা কলমও তবু করিনি বিক্রি,
কলমই তো শোষিত নারীদের গল্প জানে।
কতটা অভাবে স্বভাবে কাটছে জীবন,
হৃদয়ের বাউন্ডুলে দীর্ঘশ্বাসের পদচারন।

মন্তব্য যোগ করুন

কবিতাটির উপর আপনার মন্তব্য জানাতে লগইন করুন।

মন্তব্যসমূহ