আজ ২০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯, রবিবার

আমার যৌবনের মাঝে ধাঁধা লেগে যায়
- রশিদ হারুন

মনোলীনা,
তোমার অভিমানে ষড়যন্ত্র শুরু হয় আষাঢ়ের মেঘে,
আমার বিরহে মেঘেরা বার বার যাতনা করে,
আমাকে অযথা ডেকে ডেকে,
আষাঢ়ের নির্লজ্জ বৃষ্টি
আমাকে বেহায়াপনার ইশারা করে,
তোমার বিরহে, জানলা খুলে
যখনই বৃষ্টির জলে হাত ভিজাই,
তখনই নির্লজ্জ বৃষ্টির মন ভরে না, তার আরো চাই,
শুধু হাতের ছোঁয়া তার মন ভরে না,
বিরহী “আমাকে” সম্পূর্ণরূপে চায়।


মনোলীনা,
আমি অবহেলায় করে হাত দুটো সরিয়ে ফেলি,
তারপরই, শুরু হয় তার তীব্র চিৎকার,
আকাশ ফেটে তার কান্নার জল আমাকে ডাকে,
অভিসারের জন্য ডাকে,
আদরের করার জন্য ডাকে,
মিলনের জন্য ডাকে।
আমার অবহেলার মেকি শিকল ছিঁড়ে যায়,।


মনোলীনা,
কখন যে আমি রাস্তায় এসে দাঁড়াই,
আত্মসমর্পণ করি নির্লজ্জ বৃষ্টির কাছে,
দু’হাত দিয়ে ঝাঁপটে ধরি বুকের মাঝে,
সমস্ত শরীরের প্রতিটি লোমকূপ
দখলে চলে যায় নির্লজ্জ বৃষ্টির।
আমার তৃষ্ণার্ত ঠোটে বার বার
চুম্বন করে নির্লজ্জ বৃষ্টি,
এক সময়ে আমার যৌবনের মাঝে ধাঁধা লেগে যায়।


মনোলীনা,
তোমার অভিমানে
আমার যৌবনের মাঝে ধাঁধা লেগে যায়,
আমি বুঝি না আমার শরীরে নির্লজ্জ বৃষ্টির আলিঙ্গন- আমারই প্রশ্রয়ের কিনা ?
আমারই চাওয়া কিনা?
আমি কি তোমার অবহেলায় পরকীয়া
আহ্লাদে গলে যাই কামুক বৃষ্টির ফোঁটায় ফোটায়?
আমার যৌবনের মাঝে
ধাঁধা লেগে যায় আমারই অজান্তে।


মনোলীনা,
তুমি এর প্রতিশোধ নিয়ো আমার উপড়,
অভিমান ভুলে,তার চেয়ে তুমি,
ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করো,
পর জন্মে তোমাকে যেন
আষাঢ়ের নির্লজ্জ বৃষ্টি করে পাঠায়,
তখন যেন পৃথিবীতে অন্য কোন কাল না থাকে,
শুধু আষাঢ় থাকবে, নির্লজ্জ আষাঢ় কাল,
পুরো পৃথিবীতে শুধু আমাকেই ভিজাবে,
আর তোমার কামনার জলে
আমাকে বারবার যৌবনের ধাঁধায় ফেলবে।


মনোলীনা,
আষাঢ়ের নির্লজ্জ বৃষ্টিতে
আমার যৌবনের মাঝে ধাঁধা লেগে যায়।
---------------------------------------------
জি, এম, হারুন অর রশিদ
০৪/০৮/২০১৭

মন্তব্য যোগ করুন

কবিতাটির উপর আপনার মন্তব্য জানাতে লগইন করুন।

মন্তব্যসমূহ