গজিয়ে উঠবো এই মহাবিশ্বে
- মিটু সর্দার ১৮-০৪-২০২৪

আমি কবি না, কবি না, কবি না --
আর কতোবার চিৎকার করে বলবো এ কথাটি
কাগজের পাতায় আমি আমার কথা লিখিনা
ব্যথাতুর হৃদয়ের আর্তনাদের কথা বলিনা।
আমি তাদের বুকে কুঠারাঘাত করি --
যাঁরা নির্মল আর স্বচ্ছ ভালোবাসাকে দুর্বল মনে করে
দূর্বাঘাসের মতো পিষে ফেলতে চায় --
অবৈধ ক্ষমতার মসনদে বসে রোধ করতে চায় কণ্ঠ।
আমি যুগে যুগে আসবো এই মহাবিশ্বে --
কাল মহাকালের স্বাক্ষী হয়ে --
অবৈধ ক্ষমতার ভিত নাড়াতে --
দুরারোগ্য রোগীদের রোগ সারাতে।
আমি বেপরোয়া --
পরোয়া করিনা কাঁটাতারের বেড়া--
মৃত্যুর ভয় আমি পদদলিত করেছি --
শপথ নিয়েছি পবিত্র পতাকা ছুঁয়ে
আমি লিখে যাবো তাদের কথা নির্ভয়ে।
তোমাদের মস্তিষ্কে খেলা করে কেবল একটি গাঁও
একটি দেশ- মহাদেশ
আমার মস্তিষ্কে খেলা করে পুরো বিশ্ব --
আমি সত্য পিপাসু, মুক্তিকামীদের শিষ্য।
তোমাদের চাবুক যদি রক্তাক্ত করে আমার পিঠ
ঝাঁঝরা করে আমার মোলায়েম বুক --
যদি কণ্ঠ চেপে ধরে চিরাচরিত পুরাতন রোগ --
তবুও আমি দমে যাবো না, ভাঁটা পড়বে না সুউচ্চ কণ্ঠে
দমাতে পারবেনা কেউ আমার অদম্য স্পৃহা।
আমি কবি না, কবি না, কবি না --
আমি পরিত্যক্ত কাগজে দুঃখীর দুঃখ লিখি --
ভাতের কথা লিখি অনাহারীর --
বস্ত্রহীনের বস্ত্রের স্লোগান তুলি --
কাঁপিয়ে তুলি মাঠঘাট, রাজপথ, ক্ষমতার ভিত।
আমি এক টুকরো কাগজের পাতায় লিখি
হাজারো বেকারের ব্যথাতুর হৃদয়ের কথা
ভাঙা স্বপ্ন নিয়ে অথৈজলে সাঁতরানোর কথা
সনদের বোঝা বইতে বইতে ক্লান্ত দেহে মুখ থুবড়ে পড়ার কথা।
আমি পথের কিনারার দুর্বাঘাসের মতো --
যতই দলিত করবে আমায় --
মাথা নাড়িয়ে বারবার গজিয়ে উঠবো এই মহাবিশ্বে
বিষফোঁড়া হয়ে ভেসে উঠবো খেকোদের কণ্ঠে।
আমি যখন জেলে,মজুর,মজদুরের কথা লিখতে যাই
রোগা-সোগা মুখগুলো ভেসে উঠে চোখের সামনে --
কলম থেমে যায়, ভিজে যায় ধুসর কাগজ --
ধোলাই হয়না কেবল উৎপীড়কদের মগজ।
বুকের খাঁচায় যতোদিন রয়েছে প্রাণ --
আমি গেয়ে যাবো বঞ্চিতদের গান --
অনায়াসে, ক্লান্তিহীন ভাবে আমি লিখবো মুক্তির ফরমান
ভয় করিনা মৃত্যুর --
গোপনে কেউ যদি লিখে মোর ভাগ্যবিধান
হাসিমুখে বরণ করে নিবো অন্তীম নিদান।

সৌদি আরব ১১/০৩/২০২৩ইং

মন্তব্য যোগ করুন

কবিতাটির উপর আপনার মন্তব্য জানাতে লগইন করুন।

মন্তব্যসমূহ

এখানে এপর্যন্ত 0টি মন্তব্য এসেছে।