পরিতৃপ্ত মন
- মুহাম্মদ আস্রাফুল আলম সোহেল ২৪-০৭-২০২৪

চারিদিক নিরব- নির্জনতা ।
হঠাৎ হঠাৎ সুর তোলে ঝিঁঝিপোকা ।
শৃঙ্খলাবদ্ধ পিঁপড়ার সারি বেঁধে পথচলা ।
সাদা তুলো মেঘ ভেসে যায় দূর অজানায় ।
শিকারি ঈগলের নিশানায় দিকভ্রান্ত গাংচিল ।
মুক্ত মনের উচ্ছ্বাসে ডানা মেলে উড়ে রঙিন প্রজাপতি ।
শির উঁচু করা পাহাড় আকাশ স্পর্শ করতে চায় ।
কুন্ডলী পাকানো মশার ঝাঁকে ফিঙের আচকা ছোবল ।
সাঁঝের প্রদীপ জ্বলে জোনাকির নিভু নিভু আলোয় ।
মহাসমুদ্রে ধেয়ে আসা জাহাজের ক্লান্ত নাবিক বন্দরে নোঙর ফেলার প্রতীক্ষায় ।
আগন্তুক জাহাজকে হেলিয়ে দুলিয়ে বিদায় জানায় প্রান্তের সর্পিল নারকেল গাছ ।
চাঁদের মিটমিট আলোয় মুক্তা জ্বলে বিস্তীর্ণ বালু কণায় ।
জানিনা কেন, দূর সাগরের উত্তাল ঢেউগুলি অবিরাম মাতাল নৃত্য করে সৈকতের বুকে?
অপলক চেয়ে দেখে সীমানাহীন নীল আকাশ ।
পদদলিত সৈকত, বালুকণা, কীট-পতঙ্গ, লতা-গুল্মের নিদারুণ আর্তনাদ কষ্ট দেয় দিগন্তকে ।
হয়তো- এ’রা স্রষ্টার কৃপা, পরিত্রাণ কিংবা ভালোবাসা স্পর্শ প্রার্থী ।
কখনও শান্ত হয় প্রকৃতি ।
ক্ষণিকের প্রশান্তি, প্রাণচাঞ্চল্য ও তৃপ্ততা ।
কিন্তু, অদৃশ্য নিয়ম তার পথ চলে অজানা গন্তব্যে ।
আচমকা বয়ে যায় মৃদু শীতল বাতাস ।
মায়াবী রূপালী চাঁদের হাতছানিতে এক শিহরণ আচ্ছন্ন করে ।
শিহরিত হই, মুগ্ধ আমি ।
এ এক অনাবিল শুদ্ধতা আর পবিত্র সুখানুভূতি ।

মন্তব্য যোগ করুন

কবিতাটির উপর আপনার মন্তব্য জানাতে লগইন করুন।

মন্তব্যসমূহ

এখানে এপর্যন্ত 0টি মন্তব্য এসেছে।