মহান একুশে ফেব্রুয়ারি
- মুহাম্মদ আস্রাফুল আলম সোহেল ২৫-০২-২০২৪

মায়ের আঁচল ধরে বাংলায় কথা বলি ৷
উত্তরাধিকারসূত্রে মা পেয়েছেন তার পূর্বপুরুষদের মাতৃভাষা ।
সে আমার প্রথম শিক্ষক ।
শৈশবেই কাঁচা মনে বাংলা ভাষার বীজ বুনে দেন ।
নাড়ির টান, রক্ত সম্পর্ক, স্নেহ ও ভাব বিনিময়ে মাতৃবন্ধন তৈরি করেন ৷
অ, আ, ই, ক, খ, গ… বৈচিত্র্যময় বর্ণগুলোর সাথে পরিচিত হই ৷
বাংলা আমার প্রাণের স্পন্দন ।
এক অদৃশ্য ঐশ্বরিক শক্তি ।
আমি মায়ের অস্তিত্ব বহন করি ।
ছড়িয়ে দেই বাংলাকে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে ৷
কিন্তু পাকিস্তানি শাসক-শ্রেণী বাংলা ভাষার উপর আগ্রাসন করে ।
ছাত্র-জনতার রক্ত ও চেতনায় প্রতিবাদের দাবানল সৃষ্টি হয় ৷
১৯৫২ খ্রিঃ ২১শে ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানি পুলিশ ২৬ জনকে হত্যা করে ৷
রক্তাক্ত হয় রৌদ্রদগ্ধ পিচঢালা রাজপথ ।
ভাষার জন্য অকুণ্ঠচিত্তে জীবন উৎসর্গ করেন বাংলার দামাল সন্তানেরা ৷
তাদের চরম আত্মত্যাগের বিনিময়ে বাংলা পেয়েছে রাষ্ট্রভাষার স্বীকৃতি ।
আজো ভুলিনি আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারিকে ।
বিনম্র শ্রদ্ধা, ভালোবাসা এবং কৃতজ্ঞতায় ভাষা বীর শহীদদের স্মরণ করি ৷
একুশ মানে চির উন্নত শির, স্পর্ধিত অহংকার এবং অনুপ্রেরণা ৷
মাতৃভাষা ও বাঙালি জাতিসত্তা বিকাশে একুশ প্রতিনিধিত্ব করে ।
অমর একুশে ফেব্রুয়ারি বিশ্বজনীন ।
তাই, প্রমিত বাংলা ভাষা হোক আন্তর্জাতিক ভাষা ৷৷

মন্তব্য যোগ করুন

কবিতাটির উপর আপনার মন্তব্য জানাতে লগইন করুন।

মন্তব্যসমূহ

এখানে এপর্যন্ত 1টি মন্তব্য এসেছে।

M2_mohi
১২-০২-২০২৪ ০৩:৪২ মিঃ

অসাধারণ অনুভূতির চমৎকার উপস্থাপন।

মুহাম্মদ আস্রাফুল আলম সোহেল
১৯-০২-২০২৪ ২১:১৫ মিঃ

M2_mohi
আন্তরিক ধন্যবাদ । ভালো থাকবেন । শুভরাত্রি!