গল্পটা ভিন্ন
- সামাউন ইসলাম সজীব ২৫-০২-২০২৪

তোমাকে চাওয়ার গল্পটাই ভিন্ন
এই যে এতো চাই-
কই কখনো এলে না ভরদুপুর বা হলুদ সন্ধ্যায়,
শুধু চাইতেই পারি-চাওয়া অর্থে
না পাওয়ার যে এক আকস্মিক মৃত্যু
সে খবর কি কখনো রেখেছো?

তোমার রুপ,যৌবন চিরচেনা কেশ
কখনো এলিয়ে দিও না
দিও না কখনো ঠোঁটের মৃদু স্পর্শ,
যদি এককালীন কোনো প্রেম চাও
তবে মনের মাধুঁরী মেখে কাছে নিও
যেনো তোমাকে পাওয়ার গল্পটাই ভিন্ন হয়।

এই যে কাছে আসতে চাও
বা কাছে আসার এক অন্তিম প্রহর গুনছো
ভেবেছো কি?
লুটিয়ে পড়লেই স্বাদটুকু অস্বাদে ঝুঁকে।

পাওয়া অর্থে-পাপকে বলি প্রেম
না পাওয়া অর্থে-অস্বাদকে বলি ভালবাসা।

তোমাকে ছুঁলে
ভেবে নিই আমি নেই
আমার আমিতে আত্মহত্যা করি লক্ষ কোটিবার,
তোমাকে মুছে দিলে
ভেবে নিই আমি নেই
হৃদয়ে হৃদয়ে কথোপকথনে জড়ায় সহস্র শব্দ
যদি না পাওয়া অর্থে ঘুচে যাই আমি,
এ লাশ রাখবে কোথায় বলো?
নাকি নিঃশব্দে ধ্বনিত করবে-
মর্মাহত আমরা এর যোগ্য সমাধি নাই।

আমি চেয়েই যাবো না পাওয়ার আফসোসে
তুমি ধিক্কার পাবে আমার গহীন চাওয়ার উপলব্ধিতে।

আমি তো ফসলি জমি নই
যে রৌদ্রের তাপদাহে ফেটে যাবো
আমি তো তৃষ্ণার্ত কাক নই
যে পাথুরে পাথুরে চুষে নিবো জল
আমি প্রেমিক,
ভাঙ্গা কাঁচে সারিয়ে নিচ্ছি মন।

তবুও জেনে রেখো
অষ্টক,দশক বা শতক সবকিছু নিমজ্জিত হতো,
যদি তোমাকে পাওয়ার গল্পটা ভিন্ন হতো।
যদি নিমজ্জিত হতে হতে কোনো শব্দ উঠে বেজে,
তবে নিষিদ্ধ উপকরনে হারিয়ে যাবে-
আমার দেহ লাশের সাজে।

মন্তব্য যোগ করুন

কবিতাটির উপর আপনার মন্তব্য জানাতে লগইন করুন।

মন্তব্যসমূহ

এখানে এপর্যন্ত 0টি মন্তব্য এসেছে।