আমি যদি যুদ্ধের মুখোমুখি হই
- মিহির শুভ ০২-০৩-২০২৪

তুমি যদি আমার না হও,
তবে এ পৃথিবীতে যুদ্ধ লাগিয়ে দিব।
তোমাকে নিয়ে আমি যদি যুদ্ধের মুখোমুখি হই,
জেনে রেখো, সে যুদ্ধ হবে বিশ্বযুদ্ধের চেয়ে ভয়ঙ্কর,
বিধ্বংসী ভূমিকম্প কিংবা সুনামির চেয়ে প্রলয়ঙ্করী।

আমি যদি হাতে অস্ত্র তুলে নিই, তবে যুদ্ধে যুদ্ধে
মহা-জাগতিক তাণ্ডবলীলা ছড়িয়ে দিবো পৃথিবীতে।
বিধ্বংসী নিউক্লিয়ার, হাইড্রেজেন, ক্লাস্টার বোমা
আর ইন্টার কন্টিনেন্টার ব্যালেস্টিক মিসাইলে
কাঁপিয়ে দিব সবগুলো মহাদেশের ইঞ্চি ইঞ্চি মাটি।
আমি চিরতরে ধবংস করে দিব সবুজ মাঠ,
নীল আকাশ, স্বচ্ছ-নীলাভ জলের সমুদ্র।
জলে-স্থলে আর অন্তরীক্ষে হাসতে হাসতে
আমি দাউ দাউ করে আগুন লাগিয়ে দিবো।
আমি ছাই করে দিব পাহাড়, পর্বত, বিস্তীর্ণ জনপথ
সুজলা সুফলা শস্য শ্যামলা এ সোনার বাংলা
আমি নির্বাক শ্মশান বানিয়ে ছাড়বো।
আমি ধূলিসাৎ করে দিব তিলে তিলে গড়া সভ্যতা, সংস্কৃতি।
সব মানুষের বুক থেকে আমি হৃৎপিণ্ড ছিড়ে নিবো,
ট্যাঙ্ক আর বোল্ড ড্রেজারে পিসে মারবো মানুষ।

আমি যদি তোমায় না পাই, তবে
অনিন্দ্র সুন্দর পৃথিবী কুৎসিত হয়ে যাবে,
আটলান্টিক মহাসাগর শুকিয়ে মরুভূমি হবে,
গভীর আমাজন বন উজাড় হবে,
জ্বলেপুড়ে ছাড়খার হবে বিশ্বব্রহ্মাণ্ড ।
অতপর, আমিহীন কুৎসিত পৃথিবীতে
স্প্রিন্টারে তীব্র যন্ত্রণা শরীরে ধারণ করে
প্রভুহীন কুকুরের ন্যায় চিৎকার করতে করতে
গভীর সুখে বেঁচে থেকো তুমি ।

মন্তব্য যোগ করুন

কবিতাটির উপর আপনার মন্তব্য জানাতে লগইন করুন।

মন্তব্যসমূহ

এখানে এপর্যন্ত 0টি মন্তব্য এসেছে।