আজ ১০ ফাল্গুন ১৪২৫, শুক্রবার

অজয় নদী
- লক্ষ্মণ ভাণ্ডারী - আমার কবিতা

সকাল হোল, ফরসা হোল
ফুটল কত ফুল,
সোনার আলো রাঙিয়ে দিল
অজয়ের দু’কূল।


প্রভাত রবি আঁকলো ছবি
নদীর বালুচরে,
প্রভাত পাখি উঠলো ডাকি
কিচিমিচির করে।


গাঁয়ের পথে সকাল হতে
চলে গোরুর গাড়ি,
নদীর বাঁয়ে গাছের ছায়ে
গাঁয়ে আমার বাড়ি।


বাড়ি আমার পাথরচূড়ে
অজয় নদীপারে,
আম কাঁঠাল খেজুর তাল
আছে পথের ধারে।


গাঁয়ের রাখাল বাজায় বাঁশি
নদীর কিনারায়,
নদীর ঘাটে গাঁয়ের বধূ
জল আনতে যায়।


অজয় নদী ঘাটের কাছে
মন্দির এক আছে,
সকাল হলে পাখিরা সব
বটের শাখে নাচে।


সাঁঝের বেলা ডুবলে রবি
আঁধার নামে চরে,
চাঁদের হাসি উপচে পড়ে
সারাটা রাত ধরে।

মন্তব্য যোগ করুন

কবিতাটির উপর আপনার মন্তব্য জানাতে লগইন করুন।

মন্তব্যসমূহ