আজ ৩ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬, রবিবার

কবিতাসমষ্টি তারিফ১২
- মাহমুদুল মান্নান তারিফ - সোনালি কবিতা

বারো (৮৪-৯৪)
মাহমুদুল মান্নান তারিফ৪০৮৪
তাং১৬০১২০১৭
প্রিয় যে কার মনে কে!

নয়কো অনেক নামীদামী মানুষ আমি নগণ্য,
না আছে গুণ কিছু ভালো পাপি আমি জঘন্য।
আমি ছাড়া এই ধরণীর সবাই ভালো হয় মনে,
ভাবার বিষয় এ আমারে ভালো বলে কয়জনে?

ভালো কোনো কর্ম আছে আমার তবে নয় জানা,
কর্ম ভালো একটা পেলেই মন্দ বেরোয় নয়খানা।
তারপরেও বাসেন ভালো আমায় অনেক মানুষে,
হিংসাবিদ্বেষ মিটাক মিটাক প্রেমানলের ফানুশে।

জন্মদিবস আমার এলে শুভেচ্ছা দেন অনেকে,
গুনলে জমে হাজারবার্তা প্রিয় যে কার মনে কে!

তারিফ৪০৮৫
তাং১৯০১১৭
কেনো চুনকালি দেয়?

দুনিয়ার মায়াজালে আমি ডুব দিয়েছি,
এতিমও অনাথের কেড়ে ধন নিয়েছি,
জোর যার সব তার জোর আছে শরীরে,
অর্থের বাহাদুরি আমি শুধু করি রেই।

গরিবের পেটে লাথি মেরে তার হক খাই,
প্রতিবাদ করলে তো নেই আর রক্ষাই,
অভাবের তাড়না তো কোনোদিন পাইনা,
সুখ নিয়ে ভেবে থাকি নিজ রুজি খাই না।

বাবা বেশ বড়লোক সন্তান আমি তার,
মানবেনা আমাকে যে আমি দিব বলি তার
যা ইচ্ছে তাই করি আছে খুব বিত্ত,
বিত্তের অধিকারী গর্বিত চিত্ত।

বুক বড় তাই হাঁটি উঁচু করে বড়বুক,
সালামও পাইনা যে এ আমার বড়দুখ,
দাম্ভিক বলে লোকে আমাকে যে গালি দেয়
জানিনা তো জনগণে কেনো চুনকালি দেয়?

তারিফ৪০৮৬
তাং২১০১১৭
হামদ

সরলপথে চালাও হে রব! গোমরা পথে না
তুমি হলে আসল বন্ধু ওহে রাব্বানা!
ভুলটা যদি করে বসি ক্ষমাকরে নিও
হে দয়াময় রোজহাশরে আমায় মুক্তি দিও।

কেমনকরে ডাকলে তোমায় সাড়াদিবে তুমি
প্রেমহীনেতো হৃদয় আমার মৃত মরুভূমি।
অসময়ে ডাক দিওনা পাপেরবোঝা রেখে
জানিনা গো ডান-বামের দু'ফেরেশ্তা কী লেখে?

চলাফেরা উঠাবসা মাথে-কথায় কতো
প্রতিদিনই পাপকরেছি কতো শতোশতো।
জীবন আমার ত্রুটিভরা ত্রুটির মোচন চাই
হে দয়ালু তোমার দয়ায় আমায় দিও ঠাঁই।

তিমিরগোরে কেমনে থাকি মরণেরই পরে
চিৎকার করে কাঁদলে কেউ যে আসবেনা এ ঘরে
মাফকরে দাও মরার আগে করছি নতশির
মরার আগে বানাও আমায় তোমার দীনের বীর।


তারিফ৪০৮৭
তাং২২০১১৭
লিমেরিক

ময়নাপাখির বিয়ে হবে দাওয়াতদিল কোয়েলে
বিয়ের দাওয়াত পায়নি বলে রাগকরেছে দোয়েলে।
কোকিল এসে গাইলোগান
ময়না শুনে দৌড়ে যান
রাগ করিসনে বন্ধু দোয়েল খুশিহবো তো এলে।

তারিফ৪০৮৮
তাং২৫০১১৭
লিমেরিক

লক্ষিসোনার হাসিতে তার অনায়াসে মনভরে
সবাই বলে এসেছে ভাই জেনেরাখো ধনঘরে।
একমুহূর্ত থাকলে দূরে
মায়ারটানে মনটা পুড়ে
ছেলেমেয়ের ভালোবাসায় সব মা-বাবা অন্ধরে।


তারিফ৪০৮৯
তাং২৯০১১৭
জাতির মহানায়ক

ছোটবড় নদনদী জালের মতোন,
সোনার বাংলাদেশে ছড়িয়েই আছে,
নানাজাতি মানুষের নানানকথন,
বাঙ্গালি জাতির এক ইতিহাস আছে।

দেশপ্রেমে আত্মত্যাগ ধারাবাহিকতা,
তিতুমীর থেকে শুরু সিরাজে অশেষ,
পরিহার করে চলি সব বাজেকথা,
মুজিবের অবদান জিত এনে শেষ।

প্রতি শেখ মুজিবের ভালোবাসা ঢের,
লাখোলাখো সালামও পাঠিয়ে দিলাম,
তাঁর থেকে সুশিক্ষাও আমরা নিলাম,
নির্দেশ মানতে হয় আপন হেডের।

জাতির মহানায়ক বীর বাঙ্গালির,
মানেনা যে কী হলো এ আবাঙ্গালির।

তারিফ৪০৯০
তাং৩০০১১৭
বলো কথা সৎ যা

সত্যকথা বলতে তুমি
পাচ্ছো কেনো লজ্জা?
মিথ্যাকথা শুনে আমার
হচ্ছে গরম মজ্জা!

নেই কী তোমার লজ্জাশরম?
করাও কেনো মজ্জা-গরম!
নীতিবান হও হে বেশরম!
বলো কথা সৎ যা!

তারিফ৪০৯১
তাং৩০০১১৭
লিমেরিক

মনভালো নেই আমার আজি মনভালো নেই
মনসাদা নেই আমার তবে মনকালো নেই।
মনের কাছে মন হেরে তাই
মনে পড়ে কথকতাই
এসব ভেবে মাথাব্যথাই অযথা সব চিন্তা এনেই।

তারিফ৪০৯২
তাং৩১০১১৭
একুশে ফেব্রুআরি

লাল হয়েছে ভাইয়ের খুনে কৃষ্ণচূড়ার ফুল
ফেব্রুআরির একুশে বয় রক্তনদীর পুল।
পুলের উপর লালবিরিষ্টি দেখে কাঁপে বুক
মোদ্দাকথা একুশোৎসব একুশভরা দুখ।

একুশে তো আনন্দনা একুশ জানি স্মৃতি
রফিক সালাম জব্বারদেরই একুশ মহানকৃতি।
আমার ভাইয়ের রক্তেমাখা রক্তপলাশ লাল
ভাষারতরে জীবন দিয়ে অমর চিরকাল।


তারিফ৪০৯৩
তাং০১০২১৭
ফেব্রুআরি

ফুলকে বলি ভুল করোনা ছড়াও ঘ্রাণ,
একুশ এলো মাতৃভাষার শোনাও গান।
ফুল আমাকে বললো তুমি করছো ভুল
রক্তপলাশ লালের ইস্যু জানছো মূল!!!

প্রশ্নশোনে বললো জমিন এই দেখো!
বুকেজমা শহিদগণের লাল মেখো।
লালমেখে আজ রক্তজবা হচ্ছে লাল
পলাশ-জবা নিরেট লাল তাতে হাল।

তারিফ৪০৯৪
তাং০২০২১৭
আগুনও বরফের পৃথিবীটা শান্তির!

বলো কীযে মরতেএ নেইশেষ কান্তির
আগুনও বরফের পৃথিবীটা শান্তির!
নিবসন আমাদের অস্থায়ী ঠিকানায়
ঠিকচলে যেতে হবে আন্ধার বিছানায়।

মাটিরএ বিছানাতো নির্জন শঙ্কার
মৃত্যুরপর জানি নেইদাম টঙ্কার।
দুনিয়াটা জেলখানা কেউভাবে স্বর্গই
নিঃস্বে ভাবে ঠিকি গোটাধরা মর্গই।

কেউখায় পেটপুড়ে কেউতো বা অনাহার
তথাপিও সইবে কী ধনীদের অনাচার?
দুস্থের ক্রন্দনে ক্রন্দিত আসমান
মৃতপ্রায় দীলকায়া সমতলে ভাসমান।

অনাহারে ভুগিতেছে প্রতিবেশী ধনীদের
বিরিয়ানি খাচ্ছেতো লজ্জা না গণীদের!
তবুবেশ গলাহাঁকে বলে তারা দানশীল
আমি বলি রব জানে মরতে কে ত্রাণশীল।

Mahmudul Mannan Tarif12

মন্তব্য যোগ করুন

কবিতাটির উপর আপনার মন্তব্য জানাতে লগইন করুন।

মন্তব্যসমূহ