আজ ৫ চৈত্র ১৪২৫, মঙ্গলবার

অপারগতা
- রবিন - ষোড়শী কাব্যমালা

নবান্ন ধানে দু'মুঠো অন্ন তোমায় সাধিবো,
স্বপ্ন দু'চোখে চাঁদের কণা বাহুতে বাঁধিবো,
কৃষ্ণচূড়ার রঙিন ফুলে আলো ঝলমল—
কত আশায় গুনেছি ক্ষণ সুখ টলমল।
ডুবেছি কত মগ্নতা ঘোরে আচ্ছন্ন ছায়ায়,
বিনা সুতোয় বুনেছি স্বপ্ন বিছিন্ন মায়ায়।
উপচে পড়া মধুর ছোঁয়া আঙুলে আঙুলে,
কত কিছু যে ভেবেছি বৃথা অযাচিত ভুলে।
ভাবিনি কভু, আছে কি সেই মুরতি আমার?
শূণ্য দু'হাতে বিমূর্ত যতো ভাবনাই সার!

বিস্তর সুখে মেলেছ ডানা ছেড়েছ অন্তর,
রেখে সুদূরে সীমানা ছাড়া বিরান প্রান্তর।
নির্ঝরী চোখে নীরবে ঝরে হতাশার বিন্দু,
নিষ্পৃহ ধারা গড়েই গেলো ব্যর্থতার সিন্ধু।
দুঃখ কেবল রাখোনি খোঁজ কত ভালোবাসি,
বিরহী জলে জিইয়ে থাকে যত জলরাশি।

পতেঙ্গা, বুধবার
০৯ জানুয়ারি, ২০১৯ ইং।
(১২ #ষোড়শী_কাব্য)

মন্তব্য যোগ করুন

কবিতাটির উপর আপনার মন্তব্য জানাতে লগইন করুন।

মন্তব্যসমূহ
রবিন
০৪-০২-২০১৯ ০৭:৩১

স্বপ্ন সত্যি হলে লোকে আনন্দে ভাসে, আবার নতুন কোন স্বপ্ন দেখে। একসময় প্রাপ্তিটাকে প্রায় ভুলেই যায়। অথচ স্বপ্নভঙ্গের কাতরতা এত সহজে ভুলা যায় না। সময়ের স্রোতে সব হারিয়ে যায়, শুধু এই কাতরতা বেঁচে থাকে— অমলিন।