আজ ৬ ভাদ্র ১৪২৬, বৃহস্পতিবার

বিদায় সখী বিদায়
- এস আই তানভী

বিদায় সখী বিদায়"
----------------এস.আই.তানভী

আজি এই শুভ বিবাহের দিনে
বলো সখী, বলো! কেনো কাঁদো তুমি?
তোমার বিবাহে সব সখী গণে
এসেছে গো তারা, দেখো সখী তুমি।

বাপের বাড়িতে মেয়ের জীবন
বেশ দিন নয়; সকলে তো জানে,
স্বামীর বাড়িতে তোমার ভুবন
তবু কেনো কাঁদো সখী মনে-প্রাণে?

তোমার কান্নায় কাঁদে পিতামাতা
কাঁদে ভাই-বোন, কাঁদে প্রতিবেশী
ওগো সখী, যাবে চলে দিয়ে ব্যথা
সুখী হবে পর ঘরে দিবা নিশি।।

যে ঘরেতে বঁধু বেশে যাবে তুমি
সবাই তোমারে বাসবে যে ভালো,
মায়ার বাঁধনে পর ঘরে তুমি
সহজেই হবে সখী, চন্দ্র- আলো।।

তাই মায়া কান্না কেনো কাঁদো সখী?
মুছে ফেলো তুমি চোখের-ই পানি,
তোমাকে যেতেই হবে ওগো সখী
যেখানে তোমার সুখ চিরদিন-ই।

তুমি কেনো কাঁদো? বলো সখী, বলো,
আজ থেকে যত দিন বেঁচে র'বো,
আমি তো কাঁদবো- আঁখি ছলো ছলো
তবু প্রেম স্নেহ তোমাকেই দিবো।।

অতীত স্মরণে আমিই কাঁদবো
তুমি কখনোই দুঃখ করিও না,
দুঃখ চাপা রেখে তবুও হাসবো
তোমার হৃদয়ে বেদনা দিবো না।।

সবে জানে, তুমি বিবাহ কারণে
কাঁদতেছো আজ কয় দিন ধরে,
যে কারণে কাঁদো- মোর মন জানে;
শুধু মুখ ফুটে বলতে না পারো।।

তোমার কান্নার করুণ ঐ শব্দ
যখন আমার কর্ণ-মধ্যে আসে-
তখন একাকী আমি হই স্তব্ধ,
কাঁদি শব্দহীন ; জলে বুক ভাসে।।

তোমার আমার বাড়ি দূর নয়
তোমার কান্নার শব্দ শুনে যাই,
ওহ্, কি যে বেদনা! বুক ফেটে যায়
কাকে এই দুঃখ বিরহ জানাই।।

প্রেমের-ই মাঝে বেদনা যে আছে
বুঝলাম আমি শুধু অবশেষে,
গোলাপ কুসুমে অতি কাঁটা আছে
জানলাম সখী- আমি ভালো বেসে।।

বিন্দু বিন্দু করে যে প্রেম গড়েছি
হৃদয়ে ছোট স্বপ্ন ঘর-মাঝে,
ধূলিসাৎ হলো তা এমুহূর্তে আজ-ই,
প্রেমের বিষ কাঁটা হৃদয়ে বিঁধেছে।।

বলতে কি পারো? বলো সখী, বলো
আপন কে করে পর আজ তুমি
কেনো পরে একা একা চলো?
করলে যে হৃদয় মোর মরুভূমি!!

যে প্রেমের আলো ফুটালে হৃদয়ে
আবার আপন হাতে কেনো নেভালে?
কি সুখ পেলে তুমি- দুঃখ দিয়ে?
ক্ষণস্থায়ী প্রেম তবে কেন দিলে?

আজ থেকে আর কখনো যাবো না
কদম তলায় তোমার আশায়,
বকুলের মালা আর গাঁথবো না,
থাকবো না আর কারো অপেক্ষায়।

আজ থেকে আর কখনো দিবো না
একটি সুন্দর কমল তোমাকে,
আর কোন দিন গান গাইবো না-
ভালোবাসি সখী খুব যে তোমাকে।

তোমার বিবাহে আনন্দে সবাই
একসাথে মিলে সুখ-গীত গায়,
নির্জনে আমি-ই শুধু গেয়ে যাই
বিরহের গান এই অবেলায়।।

শুভ হোক সখী তোমার বিবাহ
দুঃখ থাক বুকে আমারই যত;
জমা হোক বুকে শুধু-ই বিরহ
সুখী হও তুমি প্রকৃতির মতো।।

তোমার বিবাহের দাওয়াত পত্র
দিয়েছে হাতে তোমারই পিতা,
পত্র খানা ছিলো বহু- বিচিত্র;
পেয়ে বন্ধ হলো জীবন সুখ-খাতা।।

বুঝলে না তুমি; বুঝলো পৃথিবী
উঠলো হৃদয়ে কোন দুঃখ- ঝড়!
কাঁদলাম কত দিন; কত রাতি
শুধু ব্যথা দিয়ে হলে তুমি পর।।

উপহার দিবো কি? তোমাকে আমি!
কোন কিছু নেই এ হতাগার,
একটি কবিতা তবে দিবো আমি
লিখা আছে যাতে বিরহ আমার।।

যাতে, লিখা আছে আমার দুঃখ-কথা
'শুধু তোমাকেই কত ভালোবাসি,
সেই তুমি কেমন করে দিলে এত ব্যথা!
গলাতে পরালে আমার মৃত্যু- রশি।'

কিছু কথা লিখা ছাড়া আর নেই
তোমাকে দেবার মতো উপহার,
কবিতার মাঝে বিরহ জানাই-
গ্রহণ করিও এই কথামালা আমার।।

তবু বলি, কেঁদো না তুমি আর
চোখের পানি মুছে আজ নাও-
মেনে তারে; যে ছিলো তোমার পর,
প্রেমের বাঁধনে তারেই বেঁধে নাও।

আমি জানি, বেঁচে থাকি যদি
সুখ কোন দিন পাবে না তুমি,
আমার স্মৃতি ব্যথা দিবে দিবা রাতি
অতীত ভুলতে যে পারবে না তুমি।

আজ মধ্য রাতে সুখপাখি আমার
উড়ে যাবে আমার সীমানা ছেড়ে,
সুখ নীড়ে গিয়ে সাজাবে বাসর
আসবে না আর কোন দিন ফিরে।।

যখনই আমার এই সুখপাখি
আপনে উঠবে গিয়ে সুখ-পালকিতে
বিষ মুখে দিয়ে আমি এই দুঃখী
মরবো তখন হাসতে হাসতে।।

পরদিন সখী জানতে পারবে
আমার করুণ মৃত্যুর কথা,
বুঝি ব্যথা পেয়ে নয়ন কাঁদবে
তবু বলি, সখী গো নিওনা ব্যথা।।

আজ থেকে তুমি ভুলে যাও তাকে
সারাটি জীবন যে ছিলো তোমার -
প্রেমের-ই কাঙ্গাল, ভুলে যাও তাকে
যে ছিলো পাশে অতীতে তোমার।।

পেয়েছি অনেক; যা চেয়েছি আমি
আর কিছু চাই না তোমার কাছে,
করেছো তো বুক ব্যথায় পূর্ণ মরুভূমি,
এর চেয়ে আর কি পাওনা আছে?

আমার মরণ বার্তা শুনে তুমি
বৃথা ফেলিওনা নয়নের জল,
ঐ জল আমার কাছে অতি দামী
ভাঙ্গিওনা তুমি নিজ মনোবল।।

তবে বলে যাই, গিয়ে পরপারে
থাকবো তোমার অপেক্ষায় বসে,
যতদিন তুমি আসবেনা ফিরে
ওপারেও তোমাকে যাবো ভালোবেসে।

একটাই দাবী তোমার দুয়ারে-
মৃত দেহ দেখে যেও দুই জনে,
দুই মুঠো মাটি দিয়ে যেও কবরে
এসে বর-বঁধু তোমরা দুজনে।।

আর কোন দাবী নেই তো আমার
'কেঁদো না সখী, ফিরে এসো তুমি-
নিয়ে প্রেম ভালোবাসা তোমার,
ফিরে দেখো; অপেক্ষাতেই আমি।।

আবারও বলি, কেঁদো না আর
সুখী হও তুমি নতুনের সনে,
সুখ তো মিলে না জীবনে সবার
সুখী হও তুমি স্বামীর ভুবনে।।

তোমার বিবাহে; এই শুভ দিনে
জানালাম পৃথিবীকে সালাম,
আসবো না আর ফিরে এ ভুবনে
কেঁদো না সখী, তোমাকেও সালাম।।
------------------
২৫-২৭/০৪/০৪ ইং

মন্তব্য যোগ করুন

কবিতাটির উপর আপনার মন্তব্য জানাতে লগইন করুন।

মন্তব্যসমূহ