আজ ৩ আশ্বিন ১৪২৬, বুধবার

ভয়ন্কর স্মৃতি
- এ কে সরকার শাওন - আপন-ছায়া

শহর ছেড়ে দূরে আম্রকুন্জে
শ্যামলঘন ছায়াবীথি প্রান্তর!
শান্ত দীঘল পুকুরের মেলায়
আটকে যেত আমার অন্তর!

চরণচিহ্ন পড়তো আমার সেথায়
ক্ষণিকের তরে গোধূলি বেলায়
বসে বসে কত স্মৃতিছবি একেছি;
আজো রয়েছে যা মনের স্মরণিকায়!

সবুজের বুক চিড়ে
দীঘল রাস্তার একধারে
ধান ক্ষেতের অখণ্ড সবুজ চাদর!
অন্যধারে সারি সারি
পুকুরের টুইটুম্বুর স্বচ্ছজলরাশি।
মৃদুমন্দ বায়ে জলের কম্পিত হাঁসি
ছোট বড় গোল গোল বৃত্ত
জলের সমতলে করে নৃত্য;
দেখতে আমি বড় ভালবাসি!

সুন্দর সাজে দলবেঁধে
শান্ত পুকুরের বুক চিড়ে
ছোট ছোট ঢেউ তুলে
লেজ নেড়ে একে বেঁকে
মনের আনন্দে সাতার কাটে স্বচ্ছন্দে;
মীনগণ অবিরাম জলকেলি করে,
পথিকের মনে আনন্দের ঢেউ তুলে
খেলতো আনন্দের হোলি
আমি তা কি করে ভুলি!

বেশ চোখে পড়ে
পুকুরের চার পাড়ে
গর্ত খানা খন্দকের মুখ বেয়ে
হঠাৎ সাপ উকি মেরে
স্বাগত জানায় আমায়!
তা দেখে আমি পড়িমরি
জান বাঁচানো যে দায়!

সেই সাপ ছুটে চলে ক্ষিপ্রগতিতে
সাতরিয়ে পার হয় আড়াআড়ি;
অন্য সাপটি নিশ্চুপে চলে যায়
আমার দু'পায়ের ফাঁক ধরি;
আমি ঠায় দাড়িয়ে ভয়ে মরি
ভয়ার্ত মিঠু ছবি তুলে
কাষ্ঠরূপ পরিগ্রহকরি!
কাহিনীটা কি ভয়ন্করী
আমি আজো ভেবে মরি!

সাপে চুমু কাটেনি সেদিন!
কেটে দিলেই হয়তো হতো ভাল!
আপদ বিদায় হতো
বেশ ল্যাটা চুকে যতো
নিমিষেই রূপ রং রস মুছে গিয়ে
নিকষকালো আঁধারে হারাতো!
৫ম বারে যমরাজ বিজয়ী হতো!

এ কে সরকার শাওন
বনানী ঢাকা!
০৯.০৯.২০১৯

মন্তব্য যোগ করুন

কবিতাটির উপর আপনার মন্তব্য জানাতে লগইন করুন।

মন্তব্যসমূহ