আজ ২৮ আষাঢ় ১৪২৭, সোমবার

উপাখ্যান
- সোহরাব হোসেন - নবনীতা

দু'ফোঁটা চোখের জলের মূল্য তুমি বুঝ!
প্রত্যাশার রাত্রিগুলি হতাশায় ম্লান
সাদা চাদরের কাফনে মুড়িয়ে
লীলাময় উত্তাল নিবেদন।

ব্যগ্র বাসনার রঙিন পাপড়িগুলো খুঁটে
ছুঁড়ে ফেলে নিঃস্ব কর কতটা হেলায়!
জলধির জলরঙ লীন হতে থাকে
তপস্বী অহল্যার অব্যক্ত জীবন;
অবেলার রুদ্ধদ্বারে মাথা ঠুকে ঠুকে
এই রূপ—যৌবন আসে কোন কাজে!

শুকে শুকে অধীর হই নিস্তেজ শরীরের ঘ্রাণ,
ক্ষুধিতের ভারি শ্বাস তবুও কি জুড়ায় না কান?

দু'হাতে হাররোজ সকাল-সন্ধ্যা
সামলাও তাবুক জগৎ কতো সাবলীল!
কখনো কি মনের ভুলে ভেবে দেখ তুমি?
কতটা অধীর হয়ে পথ চেয়ে থাকি!
কাঙালিনী এই আমায় সামলায় কে!

জগৎ তো থামবে না তোমাকে ছাড়া,
আমার যে কেউ নেই, ওগো গাঁটছড়া!
কোথাও কেউ নেই, যে আমায় বুঝে!
মুছে দিতে দুঃখ-গাঁথা, ছলছল জল
দুঃখী মুখে এঁকে দিতে সুখের তিলক
কোথাও কেউ নেই, যে আমায় বুঝে।

দু'ফোঁটা সুখের জলের মূল্য তুমি বুঝ!
বয়ে যায় কলকল, সুখের তালাশে
পায় না খুঁজে তার গন্তব্যস্থল।

যমুনার জলে আমি হতে চাই রাধা,
পরাণের সখা ওগো তুমি হলে বাধা।

০৪ অক্টোবর, ২০১৯
পতেঙ্গা, চট্টগ্রাম।

মন্তব্য যোগ করুন

কবিতাটির উপর আপনার মন্তব্য জানাতে লগইন করুন।

মন্তব্যসমূহ