আজ ২১ চৈত্র ১৪২৬, রবিবার

আপনজন
- এস আই তানভী

.
(১)
সেদিন দুপুর বেলা নিয়মের বাইরে
হুট করে রাহেলা ফিরে এলো ঘরে,
দেখে; কলেজ পড়ুয়া খোকা কুসুমের সাথে
হাসি খুশি, প্রফুল্ল চিত্ত হাতে হাত রেখে।
কুসুম, ষোল কি সতের; খোকার সমবয়সী
তার মা এ বাড়ির বহু দিনের কাজের দাসী।।
০৬/০৩/১৮ইং
(২)
রাহেলা চিন্তায় বিভোর, নির্ঘুম রাত্রী যাপন
কুসুমের সাথে খোকার এ কেমন আচরণ!
দেখতে মন্দ নয়, যদিও তেলকালি, শ্যামবর্ণ
রূপ-যৌবনে সমগ্র শরীরে জ্বলে জ্বালাময়ী লাবণ্য।
তাই বলে! ছি!ছি! দাসীর মেয়ের সাথে খোকা!
চোখে কোন শর্ষেফুল? না কি দৃষ্টিতে ভুল দেখা?
০৭/০৩/১৮ইং
(৩)
পরদিন ডেকে নিয়ে খোকাকে মা আর বাবা
শাসনের নামে হৃদয়ে দিলো হায়েনার থাবা,
বহুদিনের বিশ্বস্ত দাসীর জন্য দরজা হলো বন্ধ
এতোদিন বিশ্বাস করে তারা হয়ে ছিলো যেনো অন্ধ।
কুসুমও আর আসবেনা কোনদিনও এই বাড়িতে
খোকাসহ আর লাফাবে না একই দড়িতে।।
০৮/০৩/১৮ইং
(৪)
দিন দিন প্রতিদিন খোকা হয়ে থাকে মন মরা,
বাইরে থেকেই বোঝা যায়- হৃদয়ে কত খরা,
মা তাকে ডেকে বলে- তোর লজ্জা করে না!
কুসুম আর তার মাকে কেনো ভুলে যাস না?
তোর ভেতরে নেই কি কোন মান সম্মানবোধ
ছি!ছি! খোকা, কি বেহায়া তুই! বড় এক নির্বোধ।
০৯/০৩/১৮ইং
(৫)
জানো মা, কুসুমের মা তোমার চেয়ে বেশি আপন
বলো তো, কোলে করে ফিডার খাওয়াতো কোনজন?
কে সারা দিন আমার দেখাশোনা করতো?
পায়খানা প্রসাব থেকে পরিষ্কার কে করে দিতো?
কার হাত ধরে হাটি হাটি পা পা শিখেছি আমি?
চাকরীর নামে সারাদিন কোথায় থাকতে তুমি?
১০/০৩/১৮ইং
(৬)
মা, বাবার টাকায় কি সংসার চলতো না?
কাঁন্নায় কেনো পাই নি তোমার সান্ত্বনা?
নিত্যনতুন কাপড় আর খেলনা এনে দিতে
মায়ের মমতার গন্ধ কত বলো থাকে তাতে?
কুসুমের মা সেই খেলনা সাজিয়ে দিতো
কাজ আর কাজ, তবুও আমার সাথে খেলতো।
১১/০৩/১৮ইং
(৭)
তোমার চাকরী আমাকে মা হারা করেছে
তোমার দাসী আমাকে মায়ের মমতা দিয়েছে।
আর কুসুম, তোমার দাসীর কালো মেয়েটা
হৃদয়ে খোদাই করে দিয়েছে ভাই ফোটা।
তারা নিঃশর্ত আদর, মমতা ভালোবাসা দিয়েছে
তাই তো তোমার খোকা আজ তোমার হয়েছে।
১২/০৩/১৮ইং
(৮)
ওই দাসীর জন্য আমার হাত পুড়ে যায় নি
খাট থেকে পড়ে কখনো পা মচকায় নি,
কালো মেয়েটা হাত ধরে রেখেছিলো বলে
মরে নি আজো তোমার খোকা পুকুরের জলে,
যাদের মাঝে অবুঝ খোকাকে রেখে যেতে সেদিন
বলো শুনি, কত টাকাতে শোধ হবে তাদের ঋণ?
১৩/০৩/১৮ইং
(৯)
আমার কাঁন্না আর তোমার সান্ত্বনার মধু বাণীতে
কখনো কি কেঁপেছিলো ঘরের দেয়াল প্রতিধ্বনিতে?
আমার অত টাকা প্রয়োজন ছিলো না তো মা
বাবাও তো ছিলো না অক্ষম কিংবা অকর্মা?
যে দাসী দু হাতে গড়ে তুললো তোমার খোকাকে
আজ তাকে ঘৃণা করো কোন প্রশংসিত অহমিকাতে?
১৪/০৩/১৮ইং
(১০)
তোমার চাকরী, অর্থ লোভী, পুঁজিবাদী মন
মায়ের আদর থেকে বঞ্চিত করার মূল কারণ,
ভিখারির ছেলেও মায়ের আদর পায় দিনভর
তোমার দাসীর কাছেই পেয়েছি মায়ের আদর।
সুবিশাল অট্টালিকা, বাড়ি-গাড়ি, টাকা-পয়সা
কোন কিছুতে হয় না পুরণ মায়ের ভালোবাসা।।

অর্থের দাম্ভিকতা, মান সম্মানের কথা ভেবে
আজ তুমি যাদের করে যাচ্ছো ঘৃণা;
তোমার খোকা তাদের কাছেই পেয়েছে মমতা
তাদের কোলেই খোঁজে নিবে ঠিকানা।।
------------------
১৫/০৩/১৮ইং
উৎসর্গ : আমার বিজলী আপা ( Nishat Rahman)

মন্তব্য যোগ করুন

কবিতাটির উপর আপনার মন্তব্য জানাতে লগইন করুন।

মন্তব্যসমূহ
এস আই তানভী
১৫-০৩-২০২০ ২২:৫১

অর্থের দাম্ভিকতা, মান সম্মানের কথা ভেবে
আজ তুমি যাদের করে যাচ্ছো ঘৃণা;
তোমার খোকা তাদের কাছেই পেয়েছে মমতা
তাদের কোলেই খোঁজে নিবে ঠিকানা।।