আজ ২২ আষাঢ় ১৪২৭, মঙ্গলবার

কবি
- অনিরুদ্ধ সরকার প্রথম

তোমার বুলেটকে বলো,রাস্তা বদলাতে!
তোমার চাকুকে বলো,রাস্তা বদলাতে!
তোমার লাঠিকে বলো, ফিরে আসতে!
তোমার স্টেনগানের বেয়নেট কে বলো, মাথা নোয়াতে!
কজন কবিকে হত্যা করবে?
কবি তো কবিতা নামের নাগমণি নিয়ে জন্মায়।
কবি তো ঠোটে অমরত্বের সুধা পান করে।
কবিদের মেরে ফেলা খুব সহজ?
কবি তো বাঁচে, মিছিলের প্রথম সারির আলোকে
কবি তো বাঁচে, মাছরাঙ্গার রঙ্গিন পালকে
কবি তো বাঁচে, শাবল ধরা কালসিটে হাতে
কবি তো বাঁচে, বেশ্যার হাড়ির ভাতে
কবি তো বাঁচে, বাসের ছাদের বাদাম বুটের ঝুড়িতে
কবি তো বাঁচে, ছাদের কার্নিশে কচি হাতে ওড়ানো ঘুড়িতে
কবি তো বাঁচে, কিশোরীর মাথার জবাকুসুম তেলে
কবি তো বাঁচে,পৃথিবীর তাবৎ ফ্যাসিস্টরা রসাতলে গেলে
কবি তো বাঁচে,বেদ বেদান্ত আর পুরাণে
কবি তো বাঁচে,ফজরে পড়া বৃদ্ধ পিতার কুরআনে
কবি তো বাঁচে,ছাত্রনেতার বাম কাঁধে ঝোলানো ছেড়া ঝুলিতে
কবি তো বাঁচে,বুক পেতে দেয়া পুলিশের ছোড়া গুলিতে
কবি তো বাঁচে,ফুলপুকুরের পাড়ে রোদপোহানো রাজহাঁসে
কবি তো বাঁচে,পুরানা কবড়ের হাড়ফুড়ে বেরোনো দুর্বাঘাসে
কবিরা বাঁচে কবিতায়,
কবিতা বাঁচে নীল আকাশের সাদা মেঘের খাতায়।

মন্তব্য যোগ করুন

কবিতাটির উপর আপনার মন্তব্য জানাতে লগইন করুন।

মন্তব্যসমূহ
ফয়জুল মহী
৩০-০৬-২০২০ ০৪:১৯

Welcome

হোসাইন আকরাম
৩০-০৬-২০২০ ১৪:৩০

যে কবিতায় বাজে কবির গুণগান,
তার চেয়ে কী হতে পারে ভালো-
সুন্দর সে কবিতা লেখকের আলো!