ফিলিস্তিনের কান্না
- আবদুল্লাহ্ আল-নিটাব খাঁন ১৩-০৭-২০২৪

সারা বিশ্বে বিতাড়িত,ছিলে যাত্রী মরণ পথের
মোদের বুকে জাগ্রত হলো মানবতা বোধের।
ভুলেছি মোরা পুরনো ব্যাথা,পুরনো ইতিহাস যত
মেতেছি ক্ষমায়,পেতেছি হৃদয়,মুছেছি সব ক্ষত।
তাই সাদরে তোমাদেরকে নিয়েছি টেনে বুকে
নিজে খেয়ে না খেয়ে আহার দিয়েছি মুখে।
আপন ঘরে দিয়েছি জায়গা দিয়েছি বসত-ভিটে
কষ্ট যত সহেছি নিজেই,বোঝা দেইনি তব পিঠে।
দিয়েছি মন,করেছি আপন,আপন ভাইয়ের মত
যা চেয়েছো তা-ই দিয়েছি,সাধ্য ছিলো মোর যত।

দেখেছি তোমায় আমার মতো,আমার মতোই কায়া
এখন দেখি অভিশাপ তোমার প্রতিটি ছায়ায় ছায়ায়।
হায়নার ছবি ঢেকেছিলে তুমি,বিড়ালের মুখোশ পড়ে
যে ঘরে তুমি যতনে উঠিলে,আগুন দিয়েছো সে ঘরে।
যে হাতে দিয়েছি স্নেহের পরশ,ভাঙ্গিলে মোর সে হাত
দয়ার বদলে বিবাদ বাধালে,বাঁধিয়েছো মহা সংঘাত।
আদরে সোহাগে যে মাটিতে তোমাদের দিয়েছি স্থান
সে মাটি করিলে মৃত্যুপুরী,ধ্বংসস্তূপ আর গোরস্থান।
আমার ঘরে আশ্রিতো হয়ে,আজ আমাকে কর বের
মনে রেখো জালিমেরা,পাবেনা আশ্রয় কোথাও ফের।

মন্তব্য যোগ করুন

কবিতাটির উপর আপনার মন্তব্য জানাতে লগইন করুন।

মন্তব্যসমূহ

এখানে এপর্যন্ত 1টি মন্তব্য এসেছে।

Sar57ker1981
২৩-১০-২০২৩ ০৯:৪৬ মিঃ

মহান প্রভু রক্ষা করুণ