আজ ৮ ভাদ্র ১৪২৬, শুক্রবার

নারীমুক্তি
- অধ্যাপক আব্দুস সালাম

নারী কি ওদের কাঠের পুতুল,কামনা-বাসনা নাই?
লঘু পাপে গুরুদণ্ড চাপাবে,করিবে যাচ্ছে তাই?
মাটি দিয়ে প্রভু তৈরী করেছে,আদম-সুরত নর,
স্বীয় মহিমায় কাহারে বানায়,সব চেয়ে প্রিয়তর?

লোমহর্ষক নারী-নিপীড়ক ভেবেছে কি তার মানে?
এতো পাপাচার সহিবে না আর,করে যা সঙ্গোপনে।
সে দিন বোধ হয় বেশী দূরে নয়,হবে তার সুবিচার,
হরফে হরফে প্রমাণিত হবে,করে যাহা দুরাচার।

নারীকে যাহারা পণ্য ভাবিয়া,গণ্য করেছে ভোগ্য,
তাদেরি ভেতর আছে যে কঠোর,শাস্তি পাবার যোগ্য।
সে ছিলো দেবীকা হয়েছে সেবিকা, যত্ন করেছে যারে,
তাহারে লইয়া উধাও হইয়া,পাতকী করেছে তারে?

জগদীশ্বর ঈশ্বর শুধু,নশ্বর এ পৃথিবীতে?
ত্রিভুবন ব্যাপি' রাখিয়াছে মাপি,অসাধু পথিকৃতে?
দুজনে মিলিয়া সুপথে চলিয়া,করে যদি সদাচার,
তবে শয়তান ছেড়ে ময়দান,পথ পাবে পালাবার?

বিশ্ব জুড়িয়া সংঘ গড়িয়, দাবী তোল তার কাছে,
দৃঢ় প্রত্যয়ে মোকাবেলা করো,যা কিছু বলার আছে।
বসিয়া বসিয়া কাউকে দোষিয়া,মুক্তি মিলিবে নাকো,
ভাগ্যের চাকা ঘোরে নাকো একা,নিজেরা ঘুরাতে থাকো।

মন্তব্য যোগ করুন

কবিতাটির উপর আপনার মন্তব্য জানাতে লগইন করুন।

মন্তব্যসমূহ