আজ ৮ ভাদ্র ১৪২৬, শুক্রবার

স্বাধীনতা আমার সুদৃঢ় প্রত্যয়
- অধ্যাপক আব্দুস সালাম

স্বাধীনতা মানে ভূখণ্ডের সীমা নির্ধারণী নয় শুধু,
সার্বভৌমত্বের নিশ্চয়তা বিধানের আশ্বস্ততা;
মানবতার চিন্তা-চেতনার ক্রমবর্ধমান ক্রমবিকাশ,
তন্ময় চিত্তের চিরন্তনী শান্তিময় চিন্তা-চেতনার সান্ত্বনার ভীৎ।
বার্ধক্যের বর্ধিঞ্চু বিজ্ঞতার ব্যঞ্জনাময় বলিষ্ঠ পদক্ষেপ,
“তরুণ অরুনের মতো তারুন্য তিমির-বিদারী, সে যে আলোর দেবতা”
স্বাধীনতা মানে এক মন এক আত্মার একই বিন্দুতে আত্মসমর্পণ,
আবাল-বৃদ্ধ-বনিতার এক উচ্ছাসময় উজ্জীবিত স্লোগান।

যেন বাঁধ ভাঙা বন্যার অপ্রতিরোধ্য চলমান শক্তিমত্তা,
যেন একই অভিপ্রায়ের ভিন্ন ভিন্ন অভিব্যক্তির অভিন্ন অভিপ্রকাশ।
কেউ বাইরে থেকে গ্রেনেড, রাইফেল, স্টেনগানের গুলি বর্ষনে,
কেউ অসীম আকাশের বোমারু বিমানের স্টেয়ারিং ঘুরিয়ে।
আবার কেউবা গেরিলা স্টাইলে অথবা সম্মুখ সমরে লিপ্ত হয়ে,
ভেতরের মানুষেরা হায়েনা হানাদার হত্যাযজ্ঞে নির্লিপ্ত বারুদ হয়ে।
মুক্তিযোদ্ধাদের নিরাপদ আশ্রয় ও পথপ্রদর্শকের ভূমিকা নিয়ে,
রাজাকার, জল্লাদের দিশহারা আতঙ্কের পরিসমাপ্তি ঘটিয়ে।

স্বাধীনতা মানে শিশুর কানে সোনার বাংলার গান গেয়ে ঘুম পড়ানো,
স্বাধীনতা মানে ইজ্জত-সম্ভ্রম রক্ষার রক্ষা কবচ অস্তিত্বের অঙ্গিকার।
মা-বোনের নিশ্চিত নিরাপদ আশ্রয়ের নিশ্চয়তা বিধানের আশ্বস্ততা,
স্বাধীনতা মানে শক্তিমত্তার সুদৃঢ় সংকল্প।
স্বাধীনতা মানে অপশক্তির অপতৎপরতা চিরতরে স্তব্ধ করার দৃপ্ত শপথ,
স্বাধীনতা মানে আমার আমিত্বের সুনিশ্চিৎ আত্মপরিচয়।
প্রেমময় প্রেরণার আত্মজাগরণের উদাত্ত আহবান,
স্বাধীনতা আমার অহংকার, দেশমাতৃকার সুরক্ষার সুদৃঢ় প্রত্যয়।

মন্তব্য যোগ করুন

কবিতাটির উপর আপনার মন্তব্য জানাতে লগইন করুন।

মন্তব্যসমূহ